যশোর জেলা প্রতিনিধিঃ ভাটপাড়া ইকোপার্কের আড়ালে অনৈতিক কার্যকলাপ চলছে, দেখার কেউ নেই। অভয়নগরের ভাটপাড়া আনন্দভূবন ইকোপার্কটি কয়েক একর এলাকা জুড়ে ভৈরব নদের তীরে অবস্থিত। নদীর পাড় ঘেষে গড়ে উঠা পার্কটি কাশবন ও বিভিন্ন ধরনের গাছগাছালীতে পরিপূর্ণ। স্থানটি যথেষ্ঠ আড়াল হওয়ায় সকাল ১০.০০টার পরপরই উঠতি বয়সী ছেলে মেয়েরা প্রাইভেট- কোচিং করার কথা বলে পার্কে আড্ডা দিতে আসে। পার্কটির পাশেই ভাটপাড়া বালিকা বিদ্যালয় ও সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয় অবস্থিত। সরেজমিনে দেখা গেছে ও এলাবাসীর সূত্র মতে, এখানে ৫০টাকার বিনিময়ে টিকিট কেটে পার্কটিতে ঢোকার অনুমতি মেলে, ফলে দিনে দুপুরে ঘন কাশবন ও গাছপালার আড়ালে উঠতি বয়সের যুবক-যুবতীরা অবৈধ কর্মে মেতে উঠে, এছাড়া পার্কে কোন শিশু বা বৃদ্ধদের দেখা যায় না। দিনের পর দিন এ ব্যবসা চলে আসলেও প্রশাসন নির্বিকার। ভাটপাড়া ক্যাম্পের ইনচার্জ মান্নান মুঠো ফোনে সাংবাদিকদের বলেন, আমরা এ ধরনের ঘটনা শুনেছি, গ্রামের ভেতর এ ধরনের পার্ক করা ঠিক নয়, বিষয়টি নিয়ে মালিক কর্তৃপক্ষের সঙ্গে কথা বলব। এ বিষয়ে পার্ক ম্যানেজার জাহিদ মুঠো ফোনে জানান, আমাদের এখানে কোন অবৈধ কার্যক্রম চলেনা, আপনারা পত্রিকায় আমাদের বিরুদ্ধে লিখলেও কিছু করতে পারবেন না।

অভিভাবকগণের মতে, বর্তমানে ছেলেমেয়েদের হাতে স্মার্ট মোবাইল থাকায় তারা অবাধে পর্ণ সাইটগুলোতে ঢুকে পড়ে প্রভাবিত হয় এবং তার প্রতিক্রিয়ায় তাদের মনোবাঞ্জনা পূরণ করতে নিরিবিলি পার্ক এলাকা বেছে নেয়। ফলে একদিকে যেমন সমাজ ব্যবস্থা ধ্বংস হচ্ছে, অন্যদিকে অন্যায় প্রশ্রয় পাচ্ছে। এ ব্যাপারে গণ সচেতনতা, পারিবারিক শাসন ও যথাযথ তদারকি ও প্রশাসনের যথাযথ পদক্ষেপ গ্রহণ প্রয়োজন।

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here